Breaking News

‘দেশের মাটি’ ধারাবাহিকের ‘এসপি’ বাস্তবেও বড় পুলিশ অফিসার, তাঁর দাপট সারা বাংলায়

বর্তমানে টেলিভিশনের পর্দায় বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ‘দেশের মাটি’ ধারাবাহিকটি। অল্প সময়ের মধ্যেই এই সিরিয়ালের সমস্ত চরিত্রগুলি দর্শকদের মনে বিশেষ জায়গা করে নিয়েছে। টিআরপি রেটে ও এর জনপ্রিয়তা তুঙ্গে। এই সিরিয়ালে শ্রুতি দাস সহ, দিব্যজ্যোতি দত্ত,

রুকমা রায়, রাহুল ব্যানার্জি, ভরত কল, শংকর চক্রবর্তী, রীতা দত্ত চক্রবর্তী, দেবোত্তম মজুমদারের মত বহু হেভিওয়েট তারকাদের অভিনয় করতে দেখা যায়।এই ধারাবাহিকে “নোয়া-কিয়ান” জুটির পাশাপাশি এখন “রাজা-মাম্পি” অনস্ক্রিন জুটি ও দর্শকমহলে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তবে এখন বাস্তব জীবনের পাশাপাশি রিল জীবনে ও প্রশাসনের ভূমিকা ও বেশ গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

তাই দেশের মাটি ধারাবাহিকটিতে “এসিপি সাহেব”র চরিত্রে অভিনীত, অভিনেতার আসল পরিচয় শুনলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন। তবে সিরিয়ালে “নোয়া”কে “শিবু” গুন্ডাদের হাত থেকে বাঁচানোর পর বর্তমানে নোয়ার পরিবারের সঙ্গে এক বিশেষ সম্পর্ক তৈরি হয়ে গিয়েছে এসিপি সাহেবর।

এমন কি “এসিপি সাহেব”র সঙ্গে “কিয়ান”এর মায়েরও একটি বিশেষ সম্পর্ক ছিল বলেও গল্পে এক নতুন মোড়কে তুলে ধরা হয়েছে। এই সিরিয়ালে “এসিপি সাহেব”র ভূমিকায় যিনি অভিনয় করছেন, তিনি হলেন প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়। বাস্তব জীবনেও ৬ ফুট লম্বা চওড়া ফিট চেহারা বিশিষ্ট প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় দীর্ঘ কিছু বছর জলপাইগুড়ি এবং মালদহ ডিভিশনে ডিআইজি পদে প্রশাসনিক দায়িত্বে রয়েছেন।

এছাড়াও তিনি বর্তমানে কলকাতা পুলিশে ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট ট্রেনিং প্রোগ্রামের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন। রিল জীবনের পাশাপাশি রিয়েল জীবনেও ডিআইজি অফিসার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় ঘূর্ণিঝড়, বন্যার সময় ও অসহায় মানুষদের উদ্ধার করে, ত্রাণ শিবিরে প্রয়োজনীয় সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার পাশাপাশি, কৃষকদের ফসলকে রক্ষা করেছেন তিনি।

এছাড়াও বালুরঘাটে কাস্টমস অফিসার হিসেবে কিছু ব্যক্তি নিজেদের পরিচয় দিয়ে লরি ছিন্নতাই করত, সেই ছিন্নতাইকারীদের ও হাতে-নাতে ধরে ছিলেন তিনি। এর পাশাপাশি জালনোট এবং মার্কিন ডলার উদ্ধারের ক্ষেত্রে বিশেষ অপারেশন সঙ্গে ও যুক্ত ছিলেন প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি বহু জনকল্যানমূলক কাজে বরাবর এগিয়ে এসেছেন তিনি।

বাংলার এই সাহসী, নিষ্ঠাবান পুলিশ অফিসারকে পর্দায় এনেছেন লীনা গঙ্গোপাধ্যায়। আসলে পশ্চিমবঙ্গের মহিলা কমিশনের দায়িত্বে লীনা গঙ্গোপাধ্যায় নিজেই রয়েছেন তাই সেই সূত্রেই প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়েছিল। এরপর লীনা নিজেই টেলি সিরিজে পুলিশের চরিত্রে অভিনয় করার জন্য কলকাতা পুলিশ এবং বেঙ্গল পুলিশের দায়িত্ব থাকা প্রসূন বন্দোপাধ্যায়কে নির্বাচন করেন।

হাজার দায়িত্বের পাশাপাশি শত ব্যস্ততা থাকা সত্ত্বেও প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় শুটিংয়ের জন্য সময় বের করে, সিরিয়ালের শুটিং পর্ব সম্পন্ন করেন। তবে বাস্তবের পুলিশ অফিসার প্রসূন বন্দোপাধ্যায় রিল জীবনে ও নিজের অভিনয়ের মাধ্যমে দর্শকদের মধ্যে এক বিশেষ জায়গা করে নিয়েছেন।

Sharing is caring!

About admin

Check Also

শিশুদের স্মার্টফোন আসক্তির ৫টি কুফল ও প্রতিকারের উপায়

আপনি হয়ত কোন গুরুত্বপূর্ণ কাজে ব্যস্ত। আপনার পাশে বসে ছোট বাচ্চাটা খুব দুষ্টুমি করছে। বাচ্চাকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *